• u. Sep ১৬, ২০২১

আমিওপারি ডট কম

ইতালি,ইউরোপের ভিসা,ইম্মিগ্রেসন,স্টুডেন্ট ভিসা,ইউরোপে উচ্চ শিক্ষা

ইতালির লাগার থেকে ১৭ বছরের ছেলেদের বেড় করে দেওয়ার প্রতিবাদ সভা।

Byadilzaman

Jun 14, 2013

ইতালিতে বর্তমানে বাংলাদেশর প্রচুর পরিমান ছেলে লাগারের আশ্রয়কেন্দ্রে রয়েছে। তবে এদের বেশিরভাগ লন্ডন থেকে আসা, লন্ডনে স্টুডেন্ট ভিষায় পরতে গিয়ে ফেঁসে যাওয়া স্টুডেন্টরা সেখানে টাকার কারনে ভিষা নবায়ন করতে না পেরে তাদের অনেকেই দেশে ফিরে না গিয়ে পারী জমিয়েছে ইউরোপের নানান দেশে। এরকম ইতালিতেও অনেক স্টুডেন্ট এসেছে লন্ডন সহ আরো অন্যান্য দেশ থেকে। এখানে এসে তাদের অনেকে পলিটিকাল এযাইল কেস মেরেছে, আর অনেকে ১৭ বছরে নিচে নাবালক দেখিয়ে ওদের কাছে শিশু আইন অনুযায়ী আশ্রয় চেয়েছে।তাই প্রথম দিকে ইতালির সরকারের আইন অনুযায়ী যারা নাবালক তাদের রোমের নানান আশ্রয় কেন্দ্র(লাগারে) থাকার ব্যবস্তা করে দেয়, শর্ত হোল তারা ১৮ বছর না হওয়া পর্যন্ত সেখানে থাকতে পাড়বে, তাদের থাকা খাওয়া সহ প্রতি মাসে একটি করে বাস টিকিট ও একটি মোবাইল রিচার্জ কার্ড দেওয়া হবে, সাথে ইতালিয়ান ভাষা শেখানোর কোর্স সহ ১৮ বছর পরে লাগার থেকে বেড় হওয়ার সময় তাদের ইতালিয়ান ওয়ার্ক পারমিটই(যেটাকে আমরা গ্রীন কার্ড হিসেবে জানি) দিয়ে দেওয়া হবে, যাতে করে তারা ইতালিতে লিগেল ভাবে জীবনযাপন করা করা যেকোনো রেগুরাল কাজ করতে পাড়বে এবং চাইলে নিজের দেশেও ঘুরে আসতে পাড়বে।

কিন্তু কথায় আছেনা আমরা বাঙ্গালী আমরা একজন আর একজনের ভালো দেখতে পারিনা,আর তাই কিছু সংখ্যক ছেলে-পেলের খারাপ কিছু কাজ কর্মের জন্য আজ ভুগতে হচ্ছে অন্যান্য সব ছেলেদের। তাদের অনেকে লাগারের রুল অমান্য করতো, নিজেদের ভিতর হিংসা করা ও মারামারি করার অভিযোগে ইতালির কোমুনি থেকে নতুন আইন করেছে যে, তোমাদের সবাইকে আবার মেডিক্যাল চেকাপ করা হবে, এই চেকআপে যারা ১৮ বছরের উপরে প্রমানিত হবে তাদের লাগার থেকে বেড় করে দেওয়া হবে কোন প্রকার কাগজ ছাড়া। আর যারা সত্যি সত্যি ১৮ বছরের নিচে তাদের কে আমরা ১৮ বছর হওয়া পর্যন্ত দেখাশুনা করবো। উল্লেখ্য এখানে প্রায় ৮০% ছেলে-পেলেই ১৮ বছরের উপরের কিন্তু তারা তারপরেও অবস্থান করে আসছিল এবং লাগারের নিয়ম অনুযায়ী সবাইকে লাগারে প্রবেশ করার আগে চেকআপ করিয়ে আন্ডার ১৮ রোর মেডিক্যাল সার্টিফিকেট নিয়ে লাগারে ঢুকতে হয় এবং সেই সার্টিফিকেট অনুযায়ী তার সবাই ১৮ বছরের নিচে ছিল,তার মানে এই দাঁড়ালো যে ইতালিয়ান প্রশাসন জেনে শুনেই মানবতার কথা চিন্তা করে ওদের এই ছাড় দিতো। কিন্তু উল্লেখিত ঘটনার পর তারা শক্ত হতে বাধ্য হয়। আর এই চেকআপ বন্ধকরা হয় এবং নিয়ম আগের মতো রাখা নিয়ে ইতালির রোমে লাগারের ছেলেরা মিলে এর বিরুদ্ধে আন্দোলন ও প্রতিবাদ যানায়, নিচের ভিডিও টি দেখুন তাহলে আরো বিস্তারিত জানতে পাড়বেন। তবে একটি কথা ঠিক দুই এক জনের খারাপ কাজের জন্য সবাই এর শাস্তি পেতে পারে না?


[[ আপনি জানেন কি? আমাদের সাইটে আপনিও পারবেন আপনার নিজের লেখা জমা দেওয়ার মাধ্যমে আপনার বা আপনার এলাকার খবর তুলে ধরতে জানতেএখানে ক্লিক করুণতুলে ধরুন  নিজে জানুন এবং অন্যকে জানান ]]

*****লেখাটি ভালো লাগলে আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুণ!*****

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *