• u. Aug ৫, ২০২১

আমিওপারি ডট কম

ইতালি,ইউরোপের ভিসা,ইম্মিগ্রেসন,স্টুডেন্ট ভিসা,ইউরোপে উচ্চ শিক্ষা

ইতালীর ভিচেন্সা শহরের পরীক্ষায় প্রথম স্থানে উত্তীর্ণ প্রবাসী বাংলাদেশী ছাত্রী

ByLesar

Dec 27, 2012

Mahia

ইতালীর ভিচেন্সা শহরের অতি সাধারণ পরিবারের বাংলাদেশী একটি মেয়ে মাহিয়া আবেদীন রাখী (১৭) প্রতিটি বিষয়ে একশ’ পেয়ে এস.এস.সি. সমমানের পরীক্ষায় প্রথম স্থানে উত্তীর্ণ হয়ে বিশেষ সম্মান লাভ করে সমগ্র ইতালীতে রেকর্ড সৃষ্টি করেছে। এ রকম রেজাল্ট ইতিপূর্বে ইতালীয় স্কুলে কোনো বাংলাদেশী অর্জন করতে সক্ষম হয়নি। তার এই গৌরবোজ্জ্বল ফলাফল ইতালীয় ছাত্র-ছাত্রীদের টনক নড়ায়। ইপস সিলভিও চেক্কাত ডি গ্রেটার মনতেক্কিও স্কুলের মাহিয়ার এই সাফল্যের জন্য ইতালীর রাষ্ট্রপতি রিপাবলিক নাপলীতানো সংবর্ধনা দেন এবং তার ভবিষ্যৎ সাফল্য কামনা করেন । ইতালীর ইতিহাসে অভিবাসীদের জন্য এই রেজাল্ট একটি মাইল ফলক হয়ে থাকবে। মাহিয়া শুধু ইতালীয়ানদের কাছে নিজের মেধার পরিচয় তুলে ধরেনি সে বরং বাংলাদেশের ভাবমূর্তিকে ইউরোপের মাটিতে অনেক বড় করেছে। দেশ ও জাতির জন্যে বয়ে এনেছে অনন্য গৌরব। মাহিয়া আট বছর আগে তার বাবা-মায়ের সাথে ইতালীতে আসে। প্রথমে ইতালীর আরেকটি শহর বলনিয়াতে তাকে স্কুলে ভর্তি করানো হয়। ভর্তির দুই বছর পর তারা সেই শহর থেকে ভিসেন্সা চলে আসে, বর্তমান যে স্কুল থেকে মাহিয়া উত্তীর্ণ হলো। জয়নুল আবেদীনের তিন সনত্দানের মধ্যে মাহিয়া সবার বড়। যদিও ইউরোপে লেখাপড়ার খরচ চালাতে তার কষ্ট হয়েছে। তারপরও আজকের ফলাফল তার সকল দুঃখ মোচন করে দিয়েছে। তিনি তার মেয়ের সুস্বাস্থ্য কামনা করে সকল পিতামাতাকে তাদের সনত্দানদের লেখাপড়া শেখাতে বলেন। জয়নুলের সহধর্মিণী বলেন, অনেক চেষ্টার ফসল আমার মেয়ের ফলাফল। তিনি সবার কাছে তার মেয়ের জন্য দোয়া প্রার্থী। মাহিয়া বলেন, বাবা-মা সবসময় আমার পড়াশুনার ব্যাপারে সচেতন ছিলেন। যার ফলে আমি তাদের স্বপ্ন পূরণ করতে কিছুটা সক্ষম হয়েছি। বাকি স্বপ্ন পূরণ হবে যেদিন আমি কম্পিউটার ইঞ্জিনিয়ার হতে পারবো। ইউরোপে লেখাপড়ার ব্যয় অনেক বেশি যা আমার বাবা-মায়ের জন্যে কঠিন। তারপরও কষ্ট মনে হয়নি সু্কলের সকল শিক্ষক আমাকে সব সময় সাহায্য সহযোগিতা করতেন। যার ফলে একটি ভাল ফলাফল সবার কাছে দেখাতে পেরেছি। আমি সবার কাছে দোয়া প্রার্থী আমার লক্ষ্যে পেঁৗছতে। মাহিয়া আবেদিন রাখী কিশোগঞ্জ জেলার বাজিতপুর থানার হালিমপুর ইউনিয়নের সাতবাড়িয়া গ্রামের জয়নুল আবেদিনের মেয়ে। তার দাদা প্রাক্তন চেয়ারম্যান সাইদুর রহমান ভূইয়া। নানা কুলিয়ারচর থানার স্বনামধন্য অ্যাডঃ আব্দুস সাত্তার ভূইয়া।বিস্তারিত নিচের ভিডিওটি দেখুন।


[[ আপনি জানেন কি? আমাদের সাইটে আপনিও পারবেন আপনার নিজের লেখা জমা দেওয়ার মাধ্যমে আপনার বা আপনার এলাকার তথ্য তুলে ধরতে জানতে “এখানে ক্লিক করুণ” তুলে ধরুন নিজের ভিতর লুকায়িত প্রতিভা, নিজে জানুন এবং অন্যকে জানান ও নিজেকে আবিষ্কার করুণ। ]]

*****লেখাটি ভালো লাগলে আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুণ!*****

Lesar

আমিওপারি নিয়ে আপনাদের সেবায় নিয়োজিত একজন সাধারণ মানুষ। যদি কোন বিশেষ প্রয়োজন হয় তাহলে আমাকে ফেসবুকে পাবেন এই লিঙ্কে https://www.facebook.com/lesar.hm

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *