যারা ইতালিতে নাবালক বা এসাইলাম প্রার্থী হিসেবে কাগজ এর জন্য আবেদন করেছেন তাদের প্রসঙ্গে সতর্কবার্তা।

প্রিয় আমিওপারির সম্মানিত পাঠক বৃন্দ আশা করি মহান সৃষ্টি কর্তার অশেষ রহমতে আপনারা সবাই ভালোই আছেন। আমাদের কাছে অনেকেই একটি বিষয় জানতে চেয়ে মেইল ও ফোন করেছেন। আর তাদের জন্যই আমাদের আজকের এই লেখা।

পলিটিকাল এসাইলাম (রাজনৈতিক আশ্রয় গ্রহণ) জাতিসংঘ মানবাধিকার সংস্থা’র মতে প্রতিটি মানুষের অধিকার রয়েছে নিধন থেকে নিজেকে বাঁচাবার জন্য অন্য দেশে বসবাস করবার আশ্রয় প্রার্থনা করবার। যারা এই পথে আসেন তাদের ‘রেফুজি’স্ট্যাটাস দিয়ে তাদের এসাইলাম আবেদন বিবেচনার জন্য পাঠানো হয়। ১৯৫১ সালের জাতিসংঘ সম্মেলনে ‘রেফুজি’বলতে ‘নিজ দেশে জাতি, বর্ণ, গোত্র অথবা রাজনৈতিক মতামত জনিত কারণে নিরাপত্তা পেতে ব্যর্থ অথবা ভীত হয়ে অন্য দেশে আসা’কাউকে বোঝানো হয়। আমিওপারিতে এই এসাইলাম নিয়ে খুব সুন্দর করে একটি লেখা রয়েছে চাইলে এখানে ক্লিক করে পরে নিতে পারেন।

আবার এর সাথে সাথে ইতালিতে রয়েছে অপ্রাপ্ত বয়স মানে ১৮ বছরের নীচে যারা, যেটাকে ইতালিয়ান ভাষায় বলা হয় “মিনরেন্নে” এদের জন্যও রয়েছে অনেক ধরণের সুযোগ সুবিধা। যেমন যদি কেউ ইতালিতে ১৮ বছরের নীচে প্রবেশ করে এবং এদের আত্মীয় স্বজন বা দেখভাল করার কেউ না থাকে তাহলে তার সব দায় দায়িত্ব ইতালিয়ান সরকার বহন করে এমনটি এদের কে সরকারি আশ্রয়গারে রাখা হয় এবং ১৮ বছর না হওয়া পর্যন্ত তারা সেখানে থাকা খাওয়া সহ সবশেষে ইতালিয়ান ডকুমেন্ট নিয়ে বের হয়ে থাকে।

যাইহোক এবার কাজের কথায় আসি। ইতালিতে অনেকেই ইংল্যান্ড থেকে এরকম অবৈধ ভাবে প্রবেশ করে নিজের অরিজিনাল পাসপোর্ট ফেলে দিয়ে অন্য একটি নতুন পাসপোর্ট বানিয়ে বয়স কম দেখিয়ে এই সুযোগের সদব্যবহার করেছেন। মানে নিজেকে ১৮ বছরের নীচে প্রমান করিয়ে ইতালিতে কিন্ডার বা নাবালক এর তালিকায় যে কাগজ পাওয়া যায় সেই কাগজ পেয়েছেন।  মিথ্যে মামলা তৈরি করে অনেক সহজে প্রশাসনকে বোকা বানিয়ে কাগজ পেয়েছেন। এবং এরকম হাজারো ব্যক্তি রয়েছে যারা এই পদ্ধতি অবলম্বন করে ইতালির নাবালক হিসেবে কাগজ ধারী। এবং এই পর্যন্ত তাদের সব কিছু ঠিক ঠাক চললেও এখন তাদের অনেকের চোখের ঘুম হারাম। আর তাই তারা আমাদের কাছে ফোনের পর ফোন করে যাচ্ছে!! কারন?

কারন? তাদের মধ্যে প্রায় ৯০% ব্যক্তিই ১৮ বছরের উপরে এবং তারা ইতালিতে প্রবেশ করার আগে ইংল্যান্ডে স্টুডেন্ট ভিসায় প্রবেশ করেছিলো। তাও আবার ডিজিটাল পাসপোর্ট নিয়ে।

এখন কথা হচ্ছে তারা কিন্তু ইতালি এসে তাদের সেই ডিজিটাল পাসপোর্ট না দেখিয়ে ইতালিস্থ বাংলাদেশ দূতাবাসে লস পাসপোর্ট হিসেবে নিজের ইচ্ছে মতো ১৮ বছরের কম বয়স বলে ভুয়া একটি পাসপোর্ট নিয়ে সেই পাসপোর্ট এর উপরে তাদের ইতালিয়ান ডকুমেন্ট করেছে। আর তারা যখন এই কাজটি করে তখন তারা বুঝতেও পারেনি যে ভাগ্যের নির্মম পরিহাস তাদের জন্য অপেক্ষা করছে। মানে ইন্টারন্যাশনাল সিভিল এভিয়েশন এসোসিয়েশন (আইসিএও)-এর সিদ্ধান্তে ২০১৫ সালের নভেম্বর মাস থেকে বিশ্বের সব বিমানবন্দরের ইমিগ্রেশনেই এমআরপি প্রদর্শন বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। এবং এর সুত্র ধরে ইতালির নগরী মিলানে ইতিমধ্যে ডিজিটাল পাসপোর্ট এর কার্যক্রম শুরু হয়ে গিয়েছে এবং রোমেও এর কার্যক্রম শুরুর প্রক্রিয়া চলছে। তার মানে এই দাঁড়ায় যে যখন এই সব ব্যক্তি তাদের হাতে লেখা পাসপোর্ট পরিবর্তন করে এমআরপি পাসপোর্ট এর জন্য আবেদন করবে তখন কিন্তু তাদের ফিঙ্গার প্রিন্ট নেওয়ার সাথে সাথে তাদের পুরানো সব তথ্য বের হয়ে আসবে এবং দূতাবাস তাদের সেই এমআরপি পাসপোর্ট এর তথ্যের উপর ভিত্তি করেই নতুন পাসপোর্ট দিবে। তাহলে আমরা এখানে খুব সহজেই বুঝতে পারছি যে তখন এদের কি পরিণতি হতে পারে।

কাজেই আমরা আপনাদের সকল কে বিশেষ ভাবে অনুরোধ করছি আপনারা কেউ এর মধ্যে এরকম কোন কাজ করতে যাবেন না। শুধু ইতালিতে নয় ইউরোপের অন্যান্য দেশেও এই কাজটি করতে যাবেন না? কারন এতে করে আপনার অনেক বড় ক্ষতি হয়ে যাবে, কেননা ইতালিয়ান প্রশাসন যখন জানতে পারবে আপনি মিথ্যে মামলা সাজিয়ে এই কাজ গুলো করেছেন। তখন কিন্তু এর জন্য আপনার নামে তিন ধরণের মামলা করা হবে। এবং এই মামলার বিস্তারিত ইতালি সহ ইউরোপের সেঞ্জেনভুক্ত প্রতিটি দেশের পুলিশ প্রশাসনের ডাটাবেজে চলে যাবে। আশা করি আপনাদের বিষয়টি বুঝাতে পেরেছি। আর লেখাটি বেশি বেশি করে সকলের কাছে শেয়ার করে পৌঁছে দেওয়ার জন্য অনুরোধ করা যাচ্ছে, কেননা এতে করে অনেকে অনেক বড় বিপদ থেকে রক্ষা পেতে পারে। কেননা ইতালিতে এর মধ্যে অবৈধ দের বৈধ কারার গেজেট বের হবে, তখন আপনারা সাধারণ ও সত্তিকারের সব তথ্য দিয়ে লিগ্যাল ওয়েতেই কাগজ পাচ্ছেন।

আর যারা আপনাদের ফেসবুকে আমাদের সাইটের প্রতিটি লেখা পেতে চান তারা এখানে ক্লিক করে আমাদের অফিশিয়াল ফেসবুক পেজে গিয়ে লাইক দিয়ে রাখতে পারেন। তাহলে আমিওপারিতে প্রকাশিত প্রতিটি লেখা আপনার ফেসবুক নিউজ ফিডে পেয়ে যাবেন। ধন্যবাদ। 

*****লেখাটি ভালো লাগলে আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুণ!*****

View all contributions by

আমিওপারি নিয়ে আপনাদের সেবায় নিয়োজিত একজন সাধারণ মানুষ। যদি কোন বিশেষ প্রয়োজন হয় তাহলে আমাকে ফেসবুকে পাবেন এই লিঙ্কে https://www.facebook.com/lesar.hm

Subscribe To Our Newsletter

আপনার পক্ষে কি প্রতিদিন আমাদের সাইটে আসা সম্ভব হয় না? তাহলে আপনি আমাদের ইমেইল নিউজলেটার সাবসক্রাইব করতে পারেন। এর মাধ্যমে আমাদের নতুন কোনো পোষ্ট করলে আপনি স্বয়ংক্রিয়ভাবে তার সন্ধান পেয়ে যাবেন আপনার নিজের ইমেইলের ইনবক্সে।

{ 2 comments… add one }
  • Showkot September 3, 2014, 12:11 am

    Amar digital passport chilo kinto ami kindar sujog paoar jonno age and name poriborton kori but amar kindar e dhuka holo na borong wrong age and name e amar finger print hoe Ja digital passport er sathe mil nai. Pore ami finger print er vul name and age die analog passport kori . Ekhon digital passport korte gele amar ki somossa hote pare ba ki korar ace . Janale upokrito hobo . Ami Italy te illigale abong boidho hobar jonno apply korbo

  • Yousuf February 15, 2015, 6:00 pm

    Assalamualikum prio amiopari.com , prothome apnader k thanks janate cai apnar a amiopari.com er moto akta website baniecen ja visit kore Amar onnek Bebe upkrito hocchi,Onnek information pacchi . Akhon Amar problem er kotha boli ami Italy te pry 3 years er moto aci ami italy te agriculture visa ei asci 2012&digital passport a e ! Ami o Amar agr 17 years dea kindr a jai Amar name & agr change kore dei & italian documents o pai Akhon amar sob documents e ace + patente .akhon ami digital passport korte hole amake Ki korte hobe ? Ki kora ucit Amar please help korle onnek upokrito hob . Thanks

Leave a Comment

alexa toolbar

Get our toolbar!

সর্ব কালের ৮ জন সেরা লেখক

    সর্বাধিক পঠিত

    Popular Posts

    আমাদের সম্পর্কে | যোগাযোগ | সাইট ম্যাপ

    কপিরাইট ©২০১১-২০২০ । আমিওপারি ডট কম

    পূর্ব অনুমতি ব্যতিরেকে কোনো লেখা বা মন্তব্য আংশিক বা পূর্ণভাবে অন্য কোন ওয়েবসাইট বা মিডিয়াতে প্রকাশ করা যাবে না।

    ডিজাইন এবং ডেভেলপঃ

    Amiopari.com