পদ্মার লঞ্চ ডুবিতে হৃদয় বিদারক ঘটনা

জাহাঙ্গীর আলম সিকদার- কে জানে কখন কার জীবনের গতি কোথায় শেষ হবে । বাস্তব দেখিনি কিন্ত ০৪ / ০৮ / ২০১৪ পত্র পত্রিকা দেখে অভিভূত হলাম শোকের ছায়া নেমে এলো আমারও হৃদয়ে ,কত সপ্ন ডুবে গেল পদ্মার গভীরে ! তাই অন্তরাত্মা কাঁপছে এম এল পিনাক ৬ ডুবে যাওয়া ভিডিও দেখার সে আর্তনাদে ।

পদ্মার দু পাড়ে স্বজন হারানোর স্বজনদের শোক আর ক্ষোভ একাকার হয়ে আছে নির্মম , নির্দয় মৃত্যুদূত পিনাক ৬ লঞ্চে উঠবে কারো জানা ছিলনা । প্রায় ৩০০ যাত্রী শরীয়তপুরের কেওড়াকান্দি থেকে মুন্সিগঞ্জের মাওয়া ঘাটে আসা পিনাক ৬ আবহাওয়া ও পদ্মার প্রবল ঢেউয়ের ছোবলে কেড়ে নিল কারো ভাই , কারো বোন , কারো মা , কারো বাবা কারো জীবন সঙ্গী । কে জানে কার সন্তান ঘুমিয়ে ছিল তার মা কিংবা বাবার আদরের কোলে ?
প্রধান মন্ত্রী সেখ হাসিনা গভীর শোক প্রকাশ এবং নৌবাহিনী, র্যাব, কোস্ট গার্ড, ফায়ার ব্রিগেড ও বিআইডব্লিউটি-এর সংশ্লিষ্ট সকলকে কড়া নির্দেশ দিয়েছেন । কিন্ত মিলেনি তৎপরতার নির্ভর যোগ্য সুফল ।
নৌ পরিবহন মন্ত্রি সাজাহান খান বিবিসি কে বলেছেন ৩৩ টি ঝুকিপূর্ণ লঞ্চ কে চিহ্নিত করার পরও এই লঞ্চটি অতিরিক্ত যাত্রী বহন করেছে । দায় এড়ানো হউক আর সান্তনার সহায় হউক কিন্ত অত্যাধুনিক যন্ত্রাদির সাহায্যেও দুই দিন পার হয়ে গেল এখনও সন্ধান দিতে পারেনি এম এল পিনাক লঞ্চ এবং লঞ্চে হারানো যাত্রীদের । পদ্মার ঢেউয়ের সাথে যেন পাল্লা দিয়ে কাঁদছে স্বজন হারানোদের চোখের নোনা জল । উম্মুখ হয়ে তাকিয়ে আছে স্বজন হারানোর লোকজনেরা যেন হতাশার ঢেউ এখন সঙ্গী ।

যদিও নিখোঁজদের অনুসন্ধানের তথ্যকেন্দ্র অনুযায়ী নিখোঁজ যাত্রীদের মধ্যে ফরিদপুরের ২৫ জন, মাদারীপুরের ৪৯ জন, শরীয়তপুরের ২ জন , গোপালগঞ্জের ১৯, বরিশালের ৭, গাজীপুরের ২, নারায়ণগঞ্জের ৭, কুমিল্লার ৫, ঢাকার ১, ঝালকাঠির ৪, নরসিংদীর ১, নড়াইলের ১, বাগেরহাটের ২, চাঁদপুর ১, লক্ষ্মীপুরের ৩ জনসহ মোট ১২৯ জন রয়েছে । এদের মধ্যে পুরুষ ৪৬, মহিলা ৪৮ ও ৩৫ জন শিশু রয়েছে ।
সাধারন মানুষের প্রশ্ন কেন অতিরিক্ত যাত্রী বহন করল এম এল পিনাক ৬ ? কেন কনট্রোলের আওতায় না রেখে যাত্রীবাহী লঞ্চ ঘাঁট থেকে যাত্রা সুরু করতে দেওয়া হয় ? কেন লঞ্চে রাডার সংযোগ দেওয়া হয় না ? জানিনা আর কত প্রান ঝরবে সতর্ক হীনতার অভাবে ?
প্রবাসে ইতালির বোলজানো থেকে বাংলাদেশ সমিতি ও সর্বস্তরের জনগনের পক্ষ থেকে গভীর শোক ও সমবেদনা প্রকাশ করছি পাশাপাশি কোন রাজনীতির রাজনীতিবিদদের রনাঙ্গনে নয় পুরো বাংলাদেশের সর্বস্তরের মানুষের কাছে দক্ষিনাঞ্চলের জন্য সহায় ভিক্ষা চাওয়া ছাড়া কিই বা আশা করা যায় ? তাই বাংলাদেশের জন্য প্রয়োজন,দক্ষিনাঞ্চলের সাথে যোগাযোগের বন্ধুত্বের সেতু ও ছায়া । আর এই বন্ধুত্বের সেতু হউক একটি পদ্মা সেতু । সর্বনাশী আগ্রাসী ঢেউ থেকে তবুও যদি একটু রেহাই পাই আমরা বাংলাদেশের দক্ষিনাঞ্চলের সর্বস্তরের জনগন ।


*****লেখাটি ভালো লাগলে আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুণ!*****

View all contributions by

আমার সম্পর্কে তেমন কিছুই বলার নেই। আমি একজন অতি সাধারণ মানুষ। প্রায় ১ যুগ ধরে ইতালির বোলজানো শহরে বসবাস করছি। আর বোলজানোর প্রবাসী বাঙ্গালী কমিউনিটির বিভিন্ন কাজকর্ম গুলো লেখা লেখির মাধ্যমে সবার কাছে তুলে ধরাই আমার প্রধান লক্ষ্য। আমার সম্পর্কে আরও বিস্তারিত জানতে আমার ওয়েবসাইট ভিজিট করতে পারে। My Website: www.jahangirsikder.com

Subscribe To Our Newsletter

আপনার পক্ষে কি প্রতিদিন আমাদের সাইটে আসা সম্ভব হয় না? তাহলে আপনি আমাদের ইমেইল নিউজলেটার সাবসক্রাইব করতে পারেন। এর মাধ্যমে আমাদের নতুন কোনো পোষ্ট করলে আপনি স্বয়ংক্রিয়ভাবে তার সন্ধান পেয়ে যাবেন আপনার নিজের ইমেইলের ইনবক্সে।

alexa toolbar

Get our toolbar!

সর্ব কালের ৮ জন সেরা লেখক

    সর্বাধিক পঠিত

    Popular Posts

    আমাদের সম্পর্কে | যোগাযোগ | সাইট ম্যাপ

    কপিরাইট ©২০১১-২০২০ । আমিওপারি ডট কম

    পূর্ব অনুমতি ব্যতিরেকে কোনো লেখা বা মন্তব্য আংশিক বা পূর্ণভাবে অন্য কোন ওয়েবসাইট বা মিডিয়াতে প্রকাশ করা যাবে না।

    ডিজাইন এবং ডেভেলপঃ

    Amiopari.com