বাংলাদেশী ছেলে!! তেল,গ্যাস ব্যতীত সম্পূর্ণ বাতাসে চালিত মোটর সাইকেল আবিস্কার করেছে।

তেল, গ্যাস ব্যতীত সম্পূর্ণ বাতাসে চালিত মোটর সাইকেল আবিস্কার করেছে হবিগঞ্জের হাফেজ নুরুজ্জামান।তেল, গ্যাস ব্যতীত সম্পূর্ণ বাতাসে চালিত মোটর সাইকেল আবিস্কার করেছে হবিগঞ্জের মোঃ নুরুজ্জামান। সম্পূর্ণ নিজস্ব প্রযুক্তিতে সে মোটর সাইকেলটি আবিস্কার করেছে। নুরুজ্জামান হবিগঞ্জ সদর উপজেলার রিচি গ্রামের মোঃ সৈয়দ আলীর পুত্র। সে চট্টগ্রাম শ্যামলী পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের তৃতীয় বর্ষের ছাত্র। অর্থসংকট ও টেকনিক্যাল সাপোর্ট না পাওয়ায় নুরুজ্জামান তার আবিস্কারের প্রতিফলন ঘটনাতে পারছে না।
নুরুজ্জামান হবিগঞ্জ শহরের শায়েস্তানগর গাউছিয়া মাদ্রাসা থেকে কোরান শিক্ষা লাভ করে। হাফেজ সনদ পাবার পর সে জেলার দিনারপুর ফুলতলী দাখিল মাদ্রাসা থেকে ২০১০ সালে দাখিল পাস করে। পরে সে ওই সনেই চট্টগ্রামের শ্যামলী পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটে ভর্তি হয়। বর্তমানে সে তৃতীয় বর্ষের ছাত্র। লেখাপড়ার পাশাপাশি সে তেল-গ্যাস ছাড়া শুধুমাত্র বাতাসে চালিত মোটর সাইকেল আবিস্কারে মনোনিবেশ করে। দীর্ঘ প্রচেষ্টার পর সে সফলতা অর্জন করে।
মোটর সাইকেলের আবিস্কারক হাফেজ মোঃ নুরুজ্জামান জানান, এটি একটি ইঞ্জিন টেকনোলজি যার সাথে হাইড্রোলিকস মেকানিজম সংযুক্ত গিয়ার বক্স এবং সংকোচিত বাতাস ভর্তি সিলিন্ডার রয়েছে। তার আবিস্কৃত মোটর সাইকেলটিতে ৪টি এয়ার রিজার্ভার (সিলিন্ডার) রয়েছে। এতে ৮৩৩ পিএসআই পরিমান বাতাস সংরক্ষন করা সম্ভব। সিলিন্ডার বাতাস সঞ্চয় এবং ইঞ্জিনে সরবরাহ করবে। এ বাতাস দিয়ে বর্তমানে প্রায় এক কিলোমিটার পথ চলা সম্ভব। এতে ব্যয় হয় ৯১ পয়সা। তবে সম্পূর্ণ প্রযুক্তি সংযোজন সম্পন্ন হলে মোটর সাইকেলটি চলতি অবস্থায় এয়ার রিজার্ভার (সিলিন্ডার) থেকে যে পরিমান বাতাস ক্ষয় হবে তা সয়ংক্রিয়ভাবে পূর্ণ হবে। এতে ৬৬ শতাংশ অর্থ সাশ্রয় হবে। পাশাপাশি পরিবেশ দুষণমুক্ত থাকবে। এর গতি হবে প্রতি ঘন্টায় ৮০ কিলোমিটার। নুরুজ্জামান আরো জানান, টেকনলজির পূর্ণাঙ্গ ভাবে উন্নতি করা হলে এ যানটি হবে পৃথিবীর সবচাইতে দ্রুতগামী যান। কারণ এটি এমন একটি টেকনলজি যা পৃথিবীর আর কোন ইঞ্জিন টেকনলজিতে ব্যবহার করা হয়নি।
গতকাল বুধবার হাফেজ মোঃ নুরুজ্জামান তার আবিস্কৃৃত মোটর সাইকেলটি প্রদর্শন করেন। হবিগঞ্জ পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটে প্রদর্শনকালে এক অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন হবিগঞ্জ বৃন্দাবন কলেজের অধ্যক্ষ বিজিৎ কুমার ভট্টাচার্য্য, হবিগঞ্জ টেকনিক্যাল স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ হাবিবুর রহমান, মাওঃ শেখ ফরহাদ ছাদ উদ্দিন, হবিগঞ্জ প্রেসক্লাবের সভাপতি মোহাম্মদ নাহিজ। বক্তব্য হবিগঞ্জ টেকনিক্যাল স্কুল এন্ড কলেজের শিক্ষক সাহাবুদ্দিন। এ সময় নুরুজ্জামান মোটর সাইকেল উদভাবনের বর্ণনা দেন। পরে হফেজ নুরুজ্জামান মোটর সাইকেলটি চালালে উপস্থিত শত শত মানুষ করতালি দিয়ে তাকে উৎসাহিত করেন ও অভিভাদন জানান। নিচের ভিডিওটি দেখুনঃ


*****লেখাটি ভালো লাগলে আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুণ!*****

View all contributions by

আমিওপারি নিয়ে আপনাদের সেবায় নিয়োজিত একজন সাধারণ মানুষ। যদি কোন বিশেষ প্রয়োজন হয় তাহলে আমাকে ফেসবুকে পাবেন এই লিঙ্কে https://www.facebook.com/lesar.hm

Subscribe To Our Newsletter

আপনার পক্ষে কি প্রতিদিন আমাদের সাইটে আসা সম্ভব হয় না? তাহলে আপনি আমাদের ইমেইল নিউজলেটার সাবসক্রাইব করতে পারেন। এর মাধ্যমে আমাদের নতুন কোনো পোষ্ট করলে আপনি স্বয়ংক্রিয়ভাবে তার সন্ধান পেয়ে যাবেন আপনার নিজের ইমেইলের ইনবক্সে।

{ 0 comments… add one }

Leave a Comment

alexa toolbar

Get our toolbar!

সর্ব কালের ৮ জন সেরা লেখক

    সর্বাধিক পঠিত

    Popular Posts

    আমাদের সম্পর্কে | যোগাযোগ | সাইট ম্যাপ

    কপিরাইট ©২০১১-২০২০ । আমিওপারি ডট কম

    পূর্ব অনুমতি ব্যতিরেকে কোনো লেখা বা মন্তব্য আংশিক বা পূর্ণভাবে অন্য কোন ওয়েবসাইট বা মিডিয়াতে প্রকাশ করা যাবে না।

    ডিজাইন এবং ডেভেলপঃ

    Amiopari.com